সরোবর উদ্যান

angle view

ব্যবিলনের ঝুলন্ত উদ্যান ছিল প্রাচীন পৃথিবীর সপ্তমাশ্চর্যের একটি। ঝুলন্ত উদ্যানটা ঠিক কেমন ছিল? আসলে কী গাছ হাওয়ায় ভাসত?
না। যে প্রাসাদে বাগানটা ছিল তার স্তরে স্তরে যেভাবে মাটি দেওয়া ছিল তা গাছগুলো জন্মানোর জন্য যথেষ্ট। ঝুলন্ত উদ্যানের গাছগুলোর পা মাটিতেই ছিল।
মাটি ছাড়া গাছ হয় সে প্রযুক্তি এসেছে বেশিদিন নয়। শুধু পানিতে গাছের প্রয়োজনীয় পুষ্টি মিশিয়ে চলমান পানিতে গাছ চাষ করার প্রক্রিয়ার নাম হাইড্রোপনিক্স।
এরপর বিজ্ঞান আরো এগিয়েছে। গাছের প্রয়োজনীয় পুষ্টি আর কৃত্রিমভাবে মেশানো লাগবে না। একইসাথে পালন করা যাবে মাছ আর গাছ। এই প্রক্রিয়ার নাম অ্যাকোয়াপনিক্স।
আর এই অ্যাকোয়াপনিক্স প্রযুক্তির সুফল মানুষের কাছে পৌছে দিতে সরোবর প্রকৌশল তৈরি করেছে সরোবর উদ্যান।

Aquaponics — সরোবর উদ্যান from Shorobor on Vimeo.

কী আছে এতে?
একটা সরোবর – তাতে মাছ পালন হয়।
আপনি নিজের পুকুর থেকে জাল বা বড়শি দিয়ে মাছ ধরবেন। যখন দরকার তখন ধরবেন। তাজা মাছ খাবেন। ফরমালিনের ভয় নেই। ফ্রিজারে রাখার ঝামেলা নেই। স্বাদ হারানোর দুঃখ নেই।
থাকবে উদ্যান – তাতে শাক-সবজির আবাদ হয়।
নিজের হাতে লাগানো সবজি নিজে খাবেন। শাক-পাতা কিংবা ভেষজ উদ্ভিদ। লাগাবেন যেটা খুশি। কোনো সার দেওয়ার বালাই নেই। নেই কীটনাশকের বিষ কিংবা আগাছানাশকের ছোঁয়া। আসল অরগানিক। খাঁটি এবং তাজা।
আর থাকবে আত্মতৃপ্তি। কিছু একটা উৎপাদনের তৃপ্তি। জীবন পরিচর্যা করার, ফল ফলানোর খুশি। পানিতে মাছেদের খেলা দেখার আনন্দ।
সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে – পুরো প্রক্রিয়াটাতে কাজ খুব সামান্য। প্রতিদিন মাছের খাওয়া দেওয়া – এই যা!
সরোবর উদ্যান নিয়ে গবেষণার কাজ প্রায় শেষ। সফলভাবে মাছ, শাক আর সবজির চাষ করেছি আমরা নিজে। খেয়েছি, আলহামদুলিল্লাহ।
ইন শাআ আল্লাহ, এবার ঢাকার ছাদগুলোকে সবুজ করার পালা…

2 thoughts on “সরোবর উদ্যান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *