যাইতুনের তেল

tretsgiu

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমরা (যাইতুনের) তেল খাও এবং তা শরীরে এবং চুলে ব্যবহার করো। কেননা এটা বারাকাহ ও প্রাচুর্যময় গাছের তেল। সহীহ, ইবনু মা-জাহ (১৩১৯)

রাসুল(সা:) যেহেতু ব্যবহার করতে বলেছেন এতে নানাবিধ উপকারিতা থাকাটাই স্বাভাবিক। যাইতুন তেলের কয়েকটি উপকারীতা জেনে নেওয়া যাক:

* যাইতুন রক্তের কার্যক্ষমতা বাড়ায়, রক্তকে তরল রাখে ও হৃদরোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে। তাই নিয়মিত যাইতুন তেলে রান্না খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

* যাইতুন তেলে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যানসার প্রতিরোধে সহায়তা করে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।

* যাদের হাত পায়ের নখ ভেঙে যাওয়ার অভ্যাস আছে তারা যাইতুন তেল ম্যসাজ করে ভঙ্গুরতা রোধ করতে পারেন।

* রক্তে কোলস্টেরলের মাত্রাটা বেশি থাকলে যাইতুনের তেলের কোনো বিকল্প নেই। বিভিন্ন রান্নায় ও সালাদে এই তেল ব্যবহারে স্বাদ ও পুষ্টি দুটোই ঠিক রাখতে পারেন আবার কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন।

* ত্বকে চুলকানির সমস্যা দূর করতে এই তেল ম্যাসাজ করতে পারেন। শিশুর ত্বকেও নিরাপদ তেল হিসেবে জলপাই তেল ব্যবহার করা যেতে পারে।

* যাইতুনের তেল মাথার ত্বকের খুশকি দূর করার জন্যও উপকারী।

* খাবারে নিয়মিত অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে সিস্টোলিক এবং ননসিস্টোলিক রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনে।

* যাইতুনের তেল মোটা হওয়ার প্রবণতা দূর করে।

* বয়ষ্কদের হাড়ের ভঙ্গুরতা দূর করতেও যাইতুনের তেলের দারুণ গুণ রয়েছে।

* যাইতুনের তেল চোখ ওঠা, চোখের পাতায় ইনফেকশন সারাতে দারুণভাবে সাহায্য করে।

* ত্বকের ক্ষত দ্রুত সারাতে যাইতুনের তেল সহায়তা করে।

আমাদের যাইতুনের তেল অনলাইনে অর্ডার করতে http://shorobor.org/shop/product/zaitun/

অথবা ০১৭৫০ ১৮০০ ৫৫ – এই নম্বরে।

Total number of views: 464

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmailFacebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *