তালবিনা

12521163_1638815972801657_146108180_n

যব পিষে, দুধে পাকিয়ে তাতে মধু মেশালেই তৈরি হয়ে যায় তালবিনা। আমাদের তালবিনা তে পরিমিত অনুপাতে যবের পাশাপাশি রয়েছে চাল ও ছোলার গুড়া।

আয়িশাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত যে, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -কে বলতে শুনেছি যে, ‘তালবিনা’ রুগ্ন ব্যক্তির হৃদয়ে প্রশান্তি আনে এবং শোক দুঃখ কিছুটা দূর করে।

পাকস্থলী এবং অন্ত্রতে আলসারের রোগীদের সকালের নাস্তায় নাবী সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সময়ে উন্নত মানের ব্যবস্থাপত্র হিসেবে তালবিনা দেয়া হতো।

যব পিষিয়ে, দুধে পাকিয়ে তাতে মধু মিশ্রিত করলে তাকে তালবিনা বলা হয়। এতে আলসারের প্রতিটি রুগী ২/৩ মাসের মধ্যে আরোগ্য লাভ করত।

[৫৬৮৯, ৫৬৯০; মুসলিম ৩৯/৩০, হাঃ ২২১৬, আহমাদ ২৫২৭৪] আধুনিক প্রকাশনী- ৫০১৪, ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৪৯১০)

আইশা(রা:) হতে বর্ণিত,রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, তোমাদের পছন্দ না হলেও খাওয়া উচিত যাতে তোমাদের কল্যাণ(তালবিনা) রয়েছে। যার হাতে মুহাম্মাদের জীবন; তার শপথ, এটা (তালবিনা) ঠিক সেভাবে পেটকে পরিষ্কার করে যেভাবে তোমরা পানি দিয়ে মুখের ময়লা ধুয়ে পরিষ্কার করো। (সুনান আন নিসাই আল কুবরা, মুস্তাদরাক আলা সাহিয়া)

আইশাহ রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহা বলেন, যদি রসুল সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পরিবারের কেউ অসুস্থ হয়ে পড়ত, তিনি বলতেন, তালবিনা শোকাতুর হৃদয়কে শান্ত করে আর অসুস্থ হৃদয়কে সেভাবে পরিষ্কার করে যেভাবে তোমরা মুখ থেকে নোংরা ধুয়ে ফেল।
সহীহ সুনান ইবন মাযাহ, হাদিস ৩৪৪৫। হাদিসটি হাসান।

তালবিনা খুব সাধারণ একটি খাবার যা রসুল এবং সাহাবাদের সময়কার জনপ্রিয় একটি খাবার ছিল।

এর গুণাগুণ:
১. কোলেস্টেরল কমায়।
২. পেটের জ্বালা-পোড়া কমায়।
৩. হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।
৪. রক্তের সুগার ধীরে ধীরে বাড়ে, ফলে ডায়াবেটিক রোগের জন্য উপকারী।
৫. উচ্চ রক্তচাপ কমায়।
৬. কিডনি রোগীদের জন্য উপকারী।
৭. অসুস্থ, দুর্বল রোগীদের শক্তিদায়ক পথ্য হিসেবে।
৮. শিশুদের প্রয়োজনীয় আঁশ, আমিষ এবং খনিজ পদার্থ যোগান দেয়।

*যবের স্বাস্থ্যগত উপকারীতা নিয়ে যা বলেছে আধুনিক বিজ্ঞান:
http://wholegrainscouncil.org/whole-grains-101/health-benefits-of-barley

*ছোলার স্বাস্থ্যগত উপকারীতা নিয়ে যা বলেছে আধুনিক বিজ্ঞান:
http://www.medicalnewstoday.com/articles/280244.php

তালবিনা–বানানো হয় কীভাবে?
যবের দানাগুলো ঝেড়ে বেছে, শুকিয়ে বালিতে ভাজা হয়। এরপর ভাজা যব গুড়ো করা হয় ঢেকিতে। ছোলা শুকিয়ে ভাজার পর ঢেকিতে গুড়ো করা হয়। চালের গুড়োও হয় ঢেকিতে। এরপর তিনটি ৩:২:১ অনুপাতে মেশানোর পরে আটা করা জাঁতাতে।
এরপর চালনি দিয়ে চেলে বোতলে ভরা হয়।

এত কষ্ট করার দরকারটা কী? আমরা এমন একটা পুষ্টিকর খাবার আনতে চাইছি যেটা খুব সহজে তৈরি করা যাবে। বাচ্চাদের জন্য দুধের সাথে মিশিয়ে, বড়দের জন্যটক দইয়ের সাথে–সব বয়সী মানুষদের খাদ্যাভাসে যব ফিরিয়ে আনতে পারলে বেশ হয়। সেই যব–যা নিয়ে রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে প্রায় একুশটা হাদীস পাওয়া যায়।

যবের সাথে ছোলা আর চাল মেশানো হচ্ছে কেন? আমাদের মুখের সাথে তালবিনার স্বাদটা মানানোর জন্য।
রোগীদের পথ্য হিসেবে বার্লি নামে যে খাবারটি খ্যাত সেটিই মূলত যব।
আমাদের যেন আল্লাহ হালাল এবং তায়্যিব খাবার খাওয়ার তাওফিক দেন।

তালবিনার  কয়েকটি মজাদার রেসিপি:

১. ছাতু হিসেবে: সমপরিমাণ দুধ বা দইয়ের সাথে মিশিয়ে। পরিমাণ মত চিনি, মধু বা গুড় মিশিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিতে হবে।

২. আত-তালবিনা: ইমাম ইবনে তাইমিয়ার মতে ১ ভাগ যব ৫ ভাগ পানির সাথে মিশিয়ে চুলায় হালকা আঁচে জ্বাল দিয়ে তিন-চতুর্থাংশে কমে আসলে নামিয়ে ফেলতে হবে। এই তরলটি সারিদ জাতীয় খাবার সাথে পান করা যায়। পরিমাণ মত চিনি, মধু বা গুড় মিশিয়ে দুধ বা দইয়ের সাথে মিশিয়েও খাওয়া যায়।

৩. ইয়েমেনি সুপ:
১ কাপ তালবিনা পাউডার, ১/২ কাপ মশুর ডাল, ৬ কাপ পানি, ৩টি ছোট পেয়াজ (কুচি করা কাটা), ২টেবল চামচ জলপাই তেল, ১ চা চামচ হলুদ, ১/২ চা চামচ গোলমরিচের গুড়া, ১ কাপ ছোলা রান্না, ১/২ কাপ রান্না গরুর গোশত ছোট করে কাটা।

বাদামী না হওয়া পর্যন্ত জলপাইয়ের তেলে পেয়াজ ভেজে নিন। একটা সসপ্যানে ছোলা আর গোশত ছাড়া বাকি সবকিছু মিশিয়ে একবার ফুটিয়ে নিন। এবার জ্বাল কমিয়ে হালকা আঁচে দেড় ঘন্টা রাখুন। হালকা নাড়ুন। রান্নার শেষে ছোলা এবং গোশত মিশিয়ে নিন।

৪. শিশু খাদ্য:
চাল বা গমের সুজির পুষ্টিকর বিকল্প হিসেবে বাচ্চাদের রান্না করে খাওয়ানো যায়। আঁশ জাতীয় খাবার, ভিটামিন এবং মিনারেলের ঘাটতি মেটাতে উঠতি বয়সী শিশু-কিশোরদের হরলিক্সের বিকল্প হিসেবেও দেয়া যায়।

আমাদের তালবিনার সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য মাত্র ২৫০ টাকা। আমরা আপাতত দাম রাখছি ২০০ টাকা। বাসায় ডেলিভারি চাইলে সাথে ৫০ টাকা যোগ করতে হবে।

সরোবরের তালবিনা অর্ডার করতে: http://shorobor.org/shop/product/talbina/

অথবা ফোনে ০১৭৫০ ১৮০০ ৫৫

 

Total number of views: 251

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmailFacebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmail

4 thoughts on “তালবিনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *