কিমচি/ টকপি কীভাবে খাবো? এই জিনিসটা কী?

19601138_993989647403869_4753083535725117819_n

কিমচি কোরিয়ার জাতীয় খাবার। আর টকপি উত্তর ইউরোপসহ স্ক্যান্ডিনেভিয়ার দেশগুলোতে খুবই পরিচিত এবং জনপ্রিয় একটি খাবার। দুধকে ল্যাকটোব্যাসিলাস ব্যাকটেরিয়া দিয়ে ফারমেন্টেশন করে যেমন দই তৈরি করা হয়, সবজিকেও একই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কিমচি এবং টকপিতে পরিণত করা হয়।

এতে প্রচুর প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া থাকে বিধায় এগুলো বেশ স্বাস্থ্যকর— এর পুষ্টি দেহে শোষণে সাহায্য করা ছাড়াও অন্ত্রের ক্ষতিকর জীবাণু দমন করে। 
তবে এদুটো খাবার বাজারজাত করার পর আমরা দেখলাম অপরিচিত এবং খাদ্যাভাস্যের সাথে না মেলার কারণে অনেকেই বুঝতে পারছেন না এগুলো কীভাবে খাবেন। এদিকে আমরা ফুড এক্সপ্লোরার হলেও রন্ধনশিল্পী নই। এ কাজটার জন্য তাই আমরা আমাদের বোনেদের কাছে সাহায্য চাইছি।

আপনারা কিমচি-টকপি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করুন। বিভিন্ন খাবার বানিয়ে দেখুন। আল্লাহ আপনাদের যে স্বভাবজাত মেধা দিয়েছেন তা দিয়ে কিমচি এবং টকপিকে কীভাবে বাংলাদেশের মানুষের স্বাদের অনুকূলে আনা যায় তা আবিষ্কার করুন। করে আমাদের জানান। আমরা কিমচি-টকপি বিক্রির সময় আপনার রেসিপিটা আপনার নাম সহই মানুষের হাতে পৌঁছে দিতে চাই।
আমাদের সামর্থ্য কম থাকায় অংশগ্রহণকারী সকল বোনেদের পরীক্ষা করার জন্য ফ্রি কিমচি-টকপি দিতে পারছি না বলে দুঃখিত।

কিন্তু কারো পরিশ্রমের মূল্য না দেওয়াটাও অশোভন। তাই সরোবরের এই প্রতিযোগীতায় সবচেয়ে ভালো রেসিপি প্রদানকারী তিনজনকে সরোবরের ১০০০ টাকার গিফট কুপন পুরষ্কার হিসেবে দেওয়া হবে। এ কুপন দিয়ে সরোবর থেকে ১০০০ টাকা সমমূল্যের যেকোন পণ্য ক্রয় করা যাবে।

পুরষ্কারের জন্য টকপি বা কিমচি দিয়ে বানানো আপনার রেসিপিটা ছবিসহ পাঠিয়ে দিন shorobor.org@gmail.com অথবা আমাদের ফেইসবুক পেইজের ইনবক্সে। আমরা পুরো জুলাই মাসজুড়ে রেসিপিগুলো সংগ্রহ ও যাচাই করব। ইন শা আল্লাহ অগাস্ট মাসে পুরষ্কারপ্রাপ্তদের নাম ঘোষিত হবে।

Total number of views: 183

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmailFacebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedintumblrmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *